×
  • প্রকাশিত : ২০২৩-০৩-১১
  • ২৮ বার পঠিত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর বিগত ১৪ বছরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশে ব্যাপক অর্থনৈতিক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে।

শনিবার (১১ মার্চ) ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ বিজনেস সামিট-২০২৩’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ প্রথম সরকার গঠন করে। তখন দেশের কিছু উন্নয়ন করতে সক্ষম হই। ২০০৯ সালে দ্বিতীয়বার সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। এরপর থেকে বিগত ১৪ বছরে বাংলাদেশকে বিশ্বের দ্রততমবর্ধনশীল অর্থনৈতিক দেশগুলোর একটিতে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছি।

‘একসময়কার বাংলাদেশ দারিদ্র্যপীড়িত, বন্যা, খরা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের দেশ বলে পরিচিতি পেত। এখন সেই অবস্থা নেই। এখন বাংলাদেশ বিশ্বের ৩৫তম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ। উন্নয়নের রোল মডেল। এটা দাবি করতে পারি যে সবার সহযোগিতায় মাত্র ১৪ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের ব্যাপক পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ২০২৬ সালে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে যাত্রা শুরু করে ২০৩৭ সালে বাংলাদেশ বিশ্বে ২০তম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে।

কোভিড-১৯ এর কারণে বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দায় পড়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তখনও বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছি। ২০১৮ থেকে ১৯ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৮ ভাগে উন্নীত করতে সক্ষম হয়েছিলাম।

‘মাথাপিছু আয় এক দশকে তিনগুণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮২৪ মার্কিন ডলারে। জিডিপির আকার বেড়েছে। ২০০৬ সালে দারিদ্র্যের হার ছিল ৪১ দশমিক ৫ শতাংশ যা ২০ শতাংশে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি। কোভিড অতিমারি বা রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে অর্থনৈতিক মন্দা না হলে আরও ২-৩ ভাগ দারিদ্র্যের হার কমিয়ে আনতে সক্ষম হতাম।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat