×
  • প্রকাশিত : ২০২৩-০১-০১
  • ৪৯ বার পঠিত
এই পৃথিবীর মতো আর কোনো গ্রহ আছে কি সৌরজগতের বাইরে? কোনো বুদ্ধিবৃত্তিক সভ্যতার সন্ধান মিলবে কি আদৌ? উত্তর যাই হোক না কেন, বিপুল সম্ভাবনায় উজ্জীবিত হয়ে তিন দশক ধরে নাক্ষত্রিক বেলাভূমিতে অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

মহাকাশ গবেষণায় সবচেয়ে বড় সংস্থার নাম নাসা। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় এই সংস্থার পরিসংখ্যান মতে, এরই মধ্যে সোয়া পাঁচ হাজার ভিনগ্রহের দেখা পাওয়া গেছে। এ ছাড়া নয় হাজারের বেশি বহির্জাগতিক গ্রহের স্বীকৃতির অপেক্ষায় আছে। মানুষের প্রযুক্তির জালে সূর্যের বাইরে তিনশর বেশি নক্ষত্রজগৎ ধরা দিয়েছে যাদের সংসারে নিশ্চিতভাবে অন্তত একটি গ্রহ রয়েছে।


শুধু ২০২২ সালেই দুইশর বেশি বহির্গ্রহের সন্ধান মিলেছে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে, ভবিষ্যতে মহাকাশ গবেষণায় ভিনগ্রহে প্রাণের সন্ধান খুবই গুরুত্ব পাবে।


১৯৯৫ সালে প্রথমবারের মতো সৌরজগতের বাইরে কোনো গ্রহের সন্ধান মিলেছিল। আমাদের আকাশগঙ্গায় ৫১ পেগাসি বি নামের গ্রহটি খুঁজে দিয়েছিলেন মাইকেল মেয়র ও দিদিয়ার কুয়েলজ। ২০১৯ সালে এই দুই জ্যোতির্বিজ্ঞানীকে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়।

অতিকায় ডাইনোসর নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে পৃথিবীর প্রাণিকূল থেকে। তুলনায় কত খুদে, দ্বিপদী মানুষ টিকে আছে আজও। মানুষ নিজেকে ধীমান প্রাণী ভাবে। শ্রেষ্ঠত্বের দাবিও আছে তার। কিন্তু মহাজগতের পরিসরে সত্যিই মানুষ একমাত্র বুদ্ধিমান প্রাণী? নিশ্চিত করে বলা যায় না, যতদিন না মহাবিশ্বের আনাচে কানাচে ব্যাপক হারে অনুসন্ধান না চালানো হচ্ছে। উপরন্তু আমি বলব, বিশাল এবং ক্রমপ্রসারমান এই মহাবিশ্বে এমনকি মানুষের চেয়ে বুদ্ধিমান সভ্যতা থাকার সম্ভাবনা একেবারেই উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

‘অন্য পৃথিবীর আলো’ ধারাবাহিকে সম্ভাবনাময় ভিনগ্রহগুলো নিয়ে আলোকপাত করা হবে। এ লেখায় ট্রাপপিস্ট-১ নক্ষত্র নিয়ে সামান্য বলছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat