×
  • প্রকাশিত : ২০২২-১২-০৭
  • ৬৬ বার পঠিত
দেশে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ নৌবাহিনী কক্সবাজারের সমুদ্রসৈকতে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ আয়োজন করায় ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ পারে এটা প্রমাণিত।

বুধবার (৭ডিসেম্বর) ২৮টি দেশের নৌবাহিনীর অংশগ্রহণে কক্সবাজারে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ ২০২২-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ নৌবাহিনীর অংশগ্রহণে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ-২০২২ অনুষ্ঠান আয়োজন করায় সবাইকে শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী। অংশগ্রহণকারী সব দেশ এবং বিভিন্ন দেশের নৌপ্রধানদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ পারে এটা আজ প্রমাণিত।

এ সময় মহান মুক্তিযুদ্ধের সব শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন, বিধ্বস্ত বাংলাদেশের শূন্য অর্থনীতিতে দাঁড়িয়েও বঙ্গবন্ধু দেশের সার্বভৌমত্বের জন্য সশস্ত্র বাহিনীকে যুগোপযোগী করার পদক্ষেপ নেন। ওই সময়ে তিনি ঘোষণা করেছিলেন, সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব; কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়। আর তাই শান্তির জন্য শক্তিশালী নৌবাহিনী গড়ে তুলেছে বাংলাদেশ, যুদ্ধের জন্য নয়।

ভৌগোলিক সীমানা আলাদা হলেও সমুদ্র জলরাশি সব দেশকে যুক্ত করে রেখেছে। এ মিলনমেলায় সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব জোরদারের আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রী পৌঁছান কক্সবাজারে নয়নাভিরাম ইনানী সমুদ্রসৈকতে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউয়ে মনোজ্ঞ আয়োজনে বিশ্ব নৌবাহিনীর ঐতিহ্য অনুযায়ী ঘণ্টা বাজিয়ে মহড়ার উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা। তার আহ্বানে সাড়া দেন বিশ্বের ২৮টি দেশের নৌবাহিনীর প্রতিনিধিরা।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন তিনি। এ আয়োজনে যোগ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ভারতসহ ২৮ দেশের নৌবাহিনীর সদস্যরা। অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর চৌকস নৌ-সেনারা প্যারেডের মাধ্যমে সালাম জানান প্রধানমন্ত্রীকে।

এ আয়োজনের পাশাপাশি ইনানী সৈকতে স্থাপিত বাংলাদেশ নেভির স্থায়ী জেটিও উদ্বোধন করেন তিনি। 

এর আগে সকালে প্রধানমন্ত্রী উখিয়া উপজেলার সমুদ্র তীরবর্তী ইনানীতে বাংলাদেশসহ ২৮টি দেশের নৌবাহিনী ও উপকূলীয় সংগঠনগুলোর ৪ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক এ ফ্লিট রিভিউ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সেখানে পৌঁছান।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ইতিবাচক সামরিক ভাবমূর্তি ও সক্ষমতার নতুন বার্তা দিতে এবার বাংলাদেশ আয়োজন করেছে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ-২০২২। বিভিন্ন দেশ থেকে আসা যুদ্ধজাহাজ নিয়ে প্রথমবার এ আয়োজনে অংশ নিচ্ছে তারা।

নীল জলরাশিতে সারি সারি যুদ্ধজাহাজ আর নীল দিগন্ত থেকে প্যারাস্যুটে জাম্প করেন নেভি সিলের চৌকস সদস্যরা। একঝাঁক স্পিডবোটের উন্মত্ত টহল; অন্যদিকে ক্ষীপ্রগতির হেলিকপ্টার থেকে একে একে নামছেন নেভি সোয়াডসের সদস্যরা। এভাবে প্রধানমন্ত্রীর সামনে নৌবাহিনীর সদস্যরা সুন্দরভাবে পরিবেশন করেন।

উন্মুক্ত নোনা জলরাশির এ আয়োজনে নিজস্ব সাংস্কৃতিক উপাদানসমৃদ্ধ ইভেন্টের পাশাপাশি উপস্থাপিত হয় ভিনদেশি শিল্পীদের পরিবেশনাও, যা এদিন বাস্তবে উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

আন্তর্জাতিক এ ইভেন্ট আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের জন্য মঙ্গলবার শেষ করা হয় এর চূড়ান্ত মহড়া।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেশ কয়েকটি আয়োজনে অংশ নিতে একদিনের সফরে এখন কক্সবাজারে প্রধানমন্ত্রী। এ সফরকালে চার দিনব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউতে অংশ নেয়া ছাড়াও বিকেলে আওয়ামী লীগের জনসভায় ভাষণ দেবেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর এ সফর ও জনসভাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় প্রশাসন সব ধরনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat