×
  • প্রকাশিত : ২০২২-১২-০৭
  • ৬২ বার পঠিত
কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতনের চেয়ে মানসিক নির্যাতনের হার বেশি। মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে ৫৮ কোটি মানুষ কর্মক্ষেত্রে মানসিক নির্যাতনের শিকার হন।

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও), লয়েডস রেজিস্টার ফাউন্ডেশন (এলআরএফ) এবং গ্যালাপের যৌথ এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, কর্মক্ষেত্রে প্রতি পাঁচজনের একজন বা ১৭ দশমিক ৯ শতাংশ মানুষ মানসিক নির্যাতন এবং হয়রানির শিকার হন। এর অর্থ হলো-বিশ্বে প্রায় ৫৮ কোটি মানুষ তাদের অফিসে বিভিন্ন ধরনের হুমকি, অপমান, ধমক বা ভয় দেখানোর মতো কার্যকলাপের সম্মুখীন হন। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কর্মক্ষেত্রে প্রতি ১৫ জনে একজন বা ৬ দশমিক ৩ শতাংশ মানুষ যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন। এই হিসাবে সারা বিশ্বে প্রায় ২০ কোটি মানুষ কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির শিকার হন।

যৌন হয়রানির মতো ঘটনাগুলো নারীদের ক্ষেত্রে বেশি হয়। তবে মানসিক নির্যাতনের ঘটনা বেশি হয় পুরুষের ক্ষেত্রে। কর্মক্ষেত্রে শারীরিক সহিংসতার ঘটনাও বেশ উদ্বেগজনক। বিশ্বে কর্মক্ষেত্রে ২৭ কোটি বা ৮ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ শারীরিক সহিংসতার শিকার হয়েছেন। শারীরিক সহিংসতার ক্ষেত্রেও পুরুষের সংখ্যা বেশি।

কর্মক্ষেত্রে সহিংসতার এই হার অনেক উচ্চ হলেও শুধু দুজনের একজন বা ৫৪ দশমিক ৪ শতাংশ ভুক্তভোগী তাদের নেতিবাচক অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। ভুক্তভোগীরা বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের সঙ্গে এই অভিজ্ঞতা বেশি শেয়ার করে থাকেন। প্রতিবেদনে কর্মক্ষেত্রে সহিংসতা কমাতে কয়েকটি সুপারিশ করা হয়েছে।

মানসিক ও যৌন নির্যাতনসহ কর্মক্ষেত্রে অপব্যবহার রোধ করার জন্য বিদ্যমান জাতীয় এবং প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব আইনগুলোকে বাস্তবায়নের কথা বলা হয়েছে। এ ছাড়া সহিংসতা এবং হয়রানি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি, কার্যকর প্রতিকার প্রদানের জন্য প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বৃদ্ধির ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat