×
  • প্রকাশিত : ২০২২-০৯-২২
  • ৬ বার পঠিত
তালেবানের সুপ্রিম নেতা মোল্লা আখুন্দজাদা দেশটিতে নতুন শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে কট্টরপন্থী নেতা হাবিবুল্লাহ আঘাকে দায়িত্ব দিয়েছেন। 

হাবিবুল্লাহ আঘা সুপ্রিম নেতা মোল্লা আখুন্দজাদার বিশ্বস্ত লোক এবং তিনি নারী শিক্ষার ব্যাপারে কঠোর। 

তিনি শিক্ষামন্ত্রী হওয়ায় দেশটিতে নারী শিক্ষা আরও দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। 

তালেবান সরকারের মন্ত্রী পরিষদে রদবদলের অংশ হিসেবে শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন হাবিবুল্লাহ।

শিক্ষামন্ত্রী হওয়ার পর সংবাদ সংস্থা এএফপি হাবিবুল্লাহ আঘার কাছে মেয়েদের স্কুল খোলা ও নারী শিক্ষার ব্যাপারে প্রশ্ন করে। 

এ প্রশ্নের জবাবে হাবিবুল্লাহ আঘা বলেছেন, আমরা নিজ থেকে কোনো পরিকল্পনা করতে পারি না। আমরা এটি করি না। সুপ্রিম নেতার নির্দেশনা অনুযায়ী আমি কাজ করব। 

নারী শিক্ষার ব্যাপারে তার ব্যক্তিগত মতামতের বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি প্রশ্নটি এড়িয়ে যান। 

হাবিবুল্লাহ আঘাকে শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার ব্যাপারে নিশাঙ্ক মোতওয়ানি নামে একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেছেন, হাবিবুল্লাহর নিয়োগ নির্দেশ করছে যারা নারী শিক্ষার বিরুদ্ধে রয়েছে তাদের ওপরের দিকের নেতৃত্বে নিয়ে আসা হচ্ছে। 

এদিকে গত মার্চে যখন নারীদের স্কুল খোলার ঘোষণা দেওয়া হয় তখন আফগানিস্তানের শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন নুরুল্লাহ মুনির। তাকে এখন সরিয়ে অন্য পদে দেওয়া হচ্ছে।

ওই সময় মেয়েদের স্কুল খোলার বিষয়টি আটকে দেন সুপ্রিম নেতা মোল্লা আখুন্দজাদা। 

পশ্চিমা দেশগুলো বলছে যদি তালেবান তাদের কাছে স্বীকৃতি চায় তাহলে অবশ্যই মেয়েদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে। 

তালেবানের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে নারী শিক্ষার ওপর নিষেধাজ্ঞা ‘অস্থায়ী’। এটি পরবর্তীতে তুলে দেওয়া হবে।

সূত্র: দ্য নিউ আরব

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat